Breaking News
Home / বাংলা টিপস / দলের সঙ্গে সিলেট যাননি মাশরাফি

দলের সঙ্গে সিলেট যাননি মাশরাফি

আগামী এপ্রিলে সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট খেলতে আবারও পাকিস্তান যাবে বাংলাদেশ। এই ম্যাচের দু’দিন আগে ৩ এপ্রিল করাচিতে একমাত্র ওয়ানডে খেলবে দু’দল। এই ওয়ানডে ম্যাচে বাংলাদেশ দলের নেতৃত্ব দেবেন কে; মাশরাফি নাকি অন্য কেউ? ইনজুরির জন্য শ্রীলংকা সিরিজ মিস করায় বিশ্বকাপের পর সিলেটেই প্রথম খেলতে নামছেন তিনি। আগামী মাসে বিসিবির সভায় নেতৃত্ব হারালে এখানেই ‘অধিনায়ক’ মাশরাফির ক্যারিয়ারের ইতি ঘটতে যাচ্ছে।নিরাপত্তা ইস্যুতে প্রথম দুই দফায় পাকিস্তান সফরে যাননি মিডল অর্ডারের ব্যাটিং স্তম্ভ মুশফিকুর রহিম। তবে পাকিস্তান সফরের শেষ পর্বে দলের সঙ্গে তিনি যেতে পারেন। প্রথম দফা সফরের আগে মুশফিকের না যাওয়ার সিদ্ধান্তকে সম্মান জানালেও সেই সময়ে মাশরাফি নিজে পাকিস্তান সফরে যাওয়ার পক্ষে মত দিয়েছিলেন। ‘দলে থাকলে পরিবারের মতামত নিয়ে তিনি পাকিস্তানে যেতেন’ বলে মন্তব্য করেছিলেন।

এই সুযোগ কি পাবেন তিনি? অধিনায়কত্ব হারালে জাতীয় সংসদ সদস্য মাশরাফিকে দলে জায়গাও হারাতে হতে পারে। ফলে সিলেটে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজটি নিয়ে ভালোই আগ্রহ তৈরি হয়েছে সবার মাঝে। সে রোমাঞ্চকে সামনে রেখে বৃহস্পতিবার সিলেট পৌঁছেছে টাইগার বাহিনী। তবে যাকে নিয়ে এতো মাতামাতি, সেই মাশরাফিই বৃহস্পতিবার দলের সঙ্গে সিলেট যাননি। আজ যাবেন তিনি।বৃহস্পতিবার রাতে বাংলাদেশ দল পৌঁছার আগে দুপুরেই সিলেটে পৌঁছে জিম্বাবুয়ে দল। আগামী রোববার সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শুরু হবে দুই দলের তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৬টার দিকে ঢাকা থেকে বিমানে তামিম-মুশফিকরা সিলেটে পৌঁছান। টেস্ট স্কোয়াডের অনেকে ওয়ানডে সিরিজে না থাকলেও জয়ের বিকল্প ভাবছে না টাইগাররা।

টেস্টের মতো ওয়ানডে সিরিজে স্পোর্টিং উইকেট হলেও তুলনামূলকভাবে ব্যাটিংবান্ধব হবে বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু। বিয়ের জন্য সৌম্য ছুটিতে থাকলেও লিটন, আফিফ, নাঈম শেখদের ব্যাটে ঝড়ের প্রত্যাশা করবেন দর্শকরা। তবে বড় আকর্ষণ হয়ে উঠতে পারেন অধিনায়ক মাশরাফিই।তার সম্ভাব্য বিদায়ী সিরিজ হিসেবে গ্যালারিতে ঢল নামবে বলে আশা করছেন স্থানীয় ক্রীড়া সংগঠকরা। বিসিবির পরিচালক শফিউল আলম নাদেল সমকালকে বলেন, ‘সিলেটের মানুষ বরাবরই ক্রীড়াপ্রেমী। অতীতে মতো এবারও গ্যালারিভর্তি দর্শক থাকবে।’ আগামী রোববার (১ মার্চ) প্রথম ওয়ানডের পর শেষ দুটি ম্যাচ হবে ৩ ও ৬ মার্চ। দুই দল অনুশীলন শুরু করবে আজ। সিলেট স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ দল অনুশীলন করবে বিকেলে। আর জিম্বাবুয়ে নামবে সকালে।

আগামী এপ্রিলে সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট খেলতে আবারও পাকিস্তান যাবে বাংলাদেশ। এই ম্যাচের দু’দিন আগে ৩ এপ্রিল করাচিতে একমাত্র ওয়ানডে খেলবে দু’দল। এই ওয়ানডে ম্যাচে বাংলাদেশ দলের নেতৃত্ব দেবেন কে; মাশরাফি নাকি অন্য কেউ? ইনজুরির জন্য শ্রীলংকা সিরিজ মিস করায় বিশ্বকাপের পর সিলেটেই প্রথম খেলতে নামছেন তিনি। আগামী মাসে বিসিবির সভায় নেতৃত্ব হারালে এখানেই ‘অধিনায়ক’ মাশরাফির ক্যারিয়ারের ইতি ঘটতে যাচ্ছে।নিরাপত্তা ইস্যুতে প্রথম দুই দফায় পাকিস্তান সফরে যাননি মিডল অর্ডারের ব্যাটিং স্তম্ভ মুশফিকুর রহিম। তবে পাকিস্তান সফরের শেষ পর্বে দলের সঙ্গে তিনি যেতে পারেন। প্রথম দফা সফরের আগে মুশফিকের না যাওয়ার সিদ্ধান্তকে সম্মান জানালেও সেই সময়ে মাশরাফি নিজে পাকিস্তান সফরে যাওয়ার পক্ষে মত দিয়েছিলেন। ‘দলে থাকলে পরিবারের মতামত নিয়ে তিনি পাকিস্তানে যেতেন’ বলে মন্তব্য করেছিলেন।

এই সুযোগ কি পাবেন তিনি? অধিনায়কত্ব হারালে জাতীয় সংসদ সদস্য মাশরাফিকে দলে জায়গাও হারাতে হতে পারে। ফলে সিলেটে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজটি নিয়ে ভালোই আগ্রহ তৈরি হয়েছে সবার মাঝে। সে রোমাঞ্চকে সামনে রেখে বৃহস্পতিবার সিলেট পৌঁছেছে টাইগার বাহিনী। তবে যাকে নিয়ে এতো মাতামাতি, সেই মাশরাফিই বৃহস্পতিবার দলের সঙ্গে সিলেট যাননি। আজ যাবেন তিনি।বৃহস্পতিবার রাতে বাংলাদেশ দল পৌঁছার আগে দুপুরেই সিলেটে পৌঁছে জিম্বাবুয়ে দল। আগামী রোববার সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শুরু হবে দুই দলের তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৬টার দিকে ঢাকা থেকে বিমানে তামিম-মুশফিকরা সিলেটে পৌঁছান। টেস্ট স্কোয়াডের অনেকে ওয়ানডে সিরিজে না থাকলেও জয়ের বিকল্প ভাবছে না টাইগাররা।

টেস্টের মতো ওয়ানডে সিরিজে স্পোর্টিং উইকেট হলেও তুলনামূলকভাবে ব্যাটিংবান্ধব হবে বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু। বিয়ের জন্য সৌম্য ছুটিতে থাকলেও লিটন, আফিফ, নাঈম শেখদের ব্যাটে ঝড়ের প্রত্যাশা করবেন দর্শকরা। তবে বড় আকর্ষণ হয়ে উঠতে পারেন অধিনায়ক মাশরাফিই।তার সম্ভাব্য বিদায়ী সিরিজ হিসেবে গ্যালারিতে ঢল নামবে বলে আশা করছেন স্থানীয় ক্রীড়া সংগঠকরা। বিসিবির পরিচালক শফিউল আলম নাদেল সমকালকে বলেন, ‘সিলেটের মানুষ বরাবরই ক্রীড়াপ্রেমী। অতীতে মতো এবারও গ্যালারিভর্তি দর্শক থাকবে।’ আগামী রোববার (১ মার্চ) প্রথম ওয়ানডের পর শেষ দুটি ম্যাচ হবে ৩ ও ৬ মার্চ। দুই দল অনুশীলন শুরু করবে আজ। সিলেট স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ দল অনুশীলন করবে বিকেলে। আর জিম্বাবুয়ে নামবে সকালে।

About admin

Check Also

হীরকজয়ন্তীতে হিরণ্ময় বিদ্যাপীঠ স্মৃতিকথা

সরকারি জুবিলী স্কুল থেকে বিজ্ঞান বিভাগে এসএসসি পাস করেছি ১৯৭৯ সালে। কলেজে ভর্তি হওয়ার পালা। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *